বিজয়ী হয়ে আলোড়ন তুলেছেন যারা

মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে জয়লাভ করা বেশ কয়েকজন প্রার্থী ইতোমধ্যে তাদের অর্জিত বিজয় দিয়ে মানুষের মধ্যে আলোড়ন তুলেছেন। দেশটির ইতিহাসে এবারই প্রথম দুইজন মুসলিম নারী আইনসভার সদস্য নির্বাচিত হওয়ার মধ্য দিয়ে কংগ্রেসে স্থান পেয়েছেন। অপরদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের বড়ভাই গ্রেগ পেন্স আইনসভার সদস্য হিসেবে নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন।

দুইজন মুসলিম নারী কংগ্রেস সদস্য হিসেবে নির্বাচিত: যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দেশটিতে প্রথমবারের মত এবারই প্রথম কোনো মুসলিম নারী প্রার্থী নির্বাচনে জয়লাভ করে আইনসভার সদস্য হলেন। নির্বাচিত দুইজনের একজন ফিলিস্তিনী বংশোদ্ভুত রাশিদা তালিব, অপরজন সোমালিয় বংশোদ্ভুত ইলহান ওমর। নির্বাচিত দুইজনই ডেমোক্র্যাট পার্টির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। ক্রমবর্ধমানভাবে মুসলিম বিদ্বেষ বাড়তে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের মত একটি দেশের নির্বাচনে মুসলিম প্রার্থীর জয়লাভ একটি ঐতিহাসিক ব্যাপার। এর আগে প্রথম মুসলিম প্রার্থী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে জিতেছিলেন কেইথ এলিসন। নবনির্বাচিত দুই জনসহ এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে তিনজন মুসলিম নির্বাচনে জয়লাভ করলেন।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় মধ্যরাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত এই ভোটগ্রহণ ও গণনা শেষে তাদের নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। এদিন সকাল ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভোট গ্রহণ চলে। যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের বড় ভাই গ্রেগ পেন্স ইউএস হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভের একটি আসনে জয়ী হয়েছেন। ৬১ বছর বয়সী গ্রেগ পেন্স একজন ব্যবসায়ী ও অবসরপ্রাপ্ত সামরিক কর্মকর্তা। প্রথমবারের মতো নির্বাচনী প্রচারণায় গ্রেগ পেন্স ট্রাম্প ও তার ভাইকে সমর্থন এবং নিজেকে রক্ষণশীল হিসেবে ঘোষণা দেন। তিনি গর্ভপাত বিরোধী ও ব্যক্তিগত বন্দুক রাখার অধিকারের পক্ষে। বিজয় বার্তায় গ্রেগ পেন্স বলেন,‘আপনাদের অনেকের মতো আমিও প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাজে অনুপ্রাণিত।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমি মধ্যবিত্তের জন্য ট্রাম্পের লড়াইকে সমর্থন করি।’ 

২৯ বছর বয়সে কংগ্রেস সদস্য নির্বাচিতহয়েছেন আলেজান্দ্রিয়া ওকাসিও-করতেজ
এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নির্বাচনে জয়লাভ করে সবচেয়ে কমবয়সে কংগ্রেসের সদস্য হওয়ার ইতিহাস গড়েছেন আলেজান্দ্রিয়া ওকাসিও-করতেজ নামে ২৯ বছর বয়সী এক নারী। নিউইয়র্ক থেকে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে জয়লাভ করেন তিনি। নবনির্বাচিত আলেজান্দ্রিয়া ওকাসিও-করতেজ ১০ টার্ম ধরে নির্বাচিত জোসেফ ক্রাউলী-কে পরাজিত করে নতুন ইতিহাস রচনা করেছেন।
অপরদিকে প্রথম আমেরিকান আদিবাসী নারী হিসেবে নির্বাচনে জয়লাভ করে কংগ্রেস সদস্য হয়েছেন শ্যারিস ডেভিডস ও দেবরা হালান্ড। তারা উভয়ই ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেন। শ্যারিস ডেভিডস কানসাস অঙ্গরাজ্য থেকে এবং দেবরা হালান্ড নিউ মেক্সিকো অঙ্গরাজ্য থেকে কংগ্রেস সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।