বিশ্বজুড়ে মানবপাচার নিয়ে উদ্বেগজনক তথ্য দিয়েছে জাতিসংঘ

বিশ্ব জুড়ে মানবপাচার নিয়ে উদ্বেগজনক তথ্য দিয়েছে জাতিসংঘের ডাগ্র এন্ড ক্রাইম-ইউএনওডিসি সম্পর্কিত অফিস। তাদের তথ্য, বিশ্বে ২০১৬ সালে আদম পাচারের ঘটনা চরম হারে বেড়েছে। পাশাপাশি বেড়েছে পাচারকারীদের শাস্তি দেয়ার ঘটনাও। প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, এখনও নারী ও তরুণীরাই প্রধান টার্গেট পাচারকারীদের। এ সংখ্যা উদ্বেগজনক সেন্ট্রাল আমেরিকা এবং ক্যারিবীয় দেশগুলোতে। যৌন ব্যবসায় বাধ্য করা হয় তাদের। যৌন দাস হিসেবে সবচেয়ে বেশি শিশুকে বিক্রি করা হয়েছিল পশ্চিম আফ্রিকায়। দক্ষিণ এশিয়ায় ভিকটিমের মধ্যে ছিলো নারী-পুরুষ-শিশুরা। তবে সেন্ট্রাল এশিয়ার বয়স্ক পুরুষরা বেশি পাচার হচ্ছে।

প্রকাশিত রিপোর্টে বলা হয়েছে, পাচারের শিকার তরুণীদের অধিক বয়সী পুরুষের সঙ্গে বিয়েতে বাধ্য করা হয় দক্ষিণ এবং পূর্ব এশিয়ায়। সেন্ট্রাল এবং সাউথ আমেরিকায় শিশুদের দত্তক দেয়া হয়। ওয়েস্টার্ন এবং সাউদার্ন ইউরোপে পাচারকৃতদের গুরুতর অপরাধ কর্মে বাধ্য করা হয়। নর্থ আফ্রিকা, সেন্ট্রাল এবং ইস্টার্ন ইউরোপে পাচারকৃতদের দেহের বিভিন্ন অঙ্গ বিক্রি করা হয়। প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, ২০০৩ সালে ২০ হাজারেরও কম আদম পাচারকারী গ্রেফতার হয়। সে সংখ্যা বেড়ে ২০১৬ সালে ২৫ হাজারের বেশি হয়েছে। ২০০৯ সালে মাত্র ২৬ দেশে আদম পাচারের বিস্তারিত তথ্য আদান প্রদানের ব্যবস্থা ছিলো। এখন তা ৬৫ দেশে সম্প্রসারিত হয়েছে বলে খবর ইউএনওডিসির।