যেসব কারণে রোজা ভেঙে গেলে কাফফারা দিতে হবে না

এখন পবিত্র রমজান মাস। আমরা কম বেশি সকলেই রোজা রাখছি। সামান্য একটু ভুলের কারণে আমাদের রোজা ভেঙে যেতে পারে। তাই চলুন দেখে নেই যেসব কারণে আমাদের রোজা ভেঙে যেতে পারে এবং এর বিপরীতে শুধু একটি রোজা রাখলেই হবে –

১। ইচ্ছাকৃত মুখ ভরে বমি করলে।

২। রাত ভেবে সুবেহ সদিকের পরে সেহেরি খেলে।

৩। সূর্যাস্তের পূর্বেই সময় হয়েছে ভেবে সময়ের আগে ইফতার করলে।

৪। মাটি বা পাথর জাতীয় অখাদ্য বস্তু গিলে ফেলা।

৫। রোজা অবস্থায় ভুলে খাওয়ার পর আবার স্বেচ্ছায় কিছু খেলে।

৬। বুট পরিমাণ কোনো বস্তু দাঁত থেকে বের করে গিলে ফেললে।

৭। কুলি করার সময় হঠাৎ পানি গলায় চলে গেলে।

৮। নাক, কান দিয়ে পানি বা ঔষধ মাথায় চলে গেলে।

৯। মলদ্বার বা প্রসাবের স্থানে ইনজেকশন দিলে বা অন্য কোনো ওষুধ দিলে যা শরীরের ভেতরে চলে যায়।

১০। স্ত্রী বা অন্য কোনো মহিলার সঙ্গে স্বাভাবিক কথাবার্তা বা ( কামভাব ছাড়া ) স্পর্শ করার দ্বারা যদি বীর্যপাত হয়ে যায়।

১১। বিড়ি, সিগারেট, গাজা, আফিম, হুক্কা ইত্যাদি যে কোনো মাদক দ্রব্য সেবন করলে।

১২। দাঁত থেকে রক্ত নির্গত হলে তা যদি থুতুর থেকে বেশি পরিমাণে হলে এবং গলায় চলে গেলে।

১৩। হস্তমৈথুন বা অন্য কোন উপায়ে বীর্য বের করলে।

এসব কারণে রোজা ভেঙে গেলে কাফফারা দিতে হবে না শুধু কাজা আদায় করলেই হবে। তবে রোজাদারদের ন্যায় সারাদিন অভুক্ত থাকা ওয়াজিব।