সকল আন্দোলনেই খোঁজা হচ্ছে সরকারবিরোধী গন্ধ

অনলাইন ডেস্ক: ‘হাতুড়িপেটা করে সরকারি চাকরি পাওয়া যাবে না। যারা ভাবছেন পাবেন, তারা বোকার স্বর্গে বাস করছেন। যে আক্রান্ত তাকেই ধরা হচ্ছে এবং হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না। অথচ আক্রমণকারী নির্বিঘ্নে ঘুরে বেড়াচ্ছে। হাতুড়ি দিয়ে বর্বরভাবে আঘাত করা হচ্ছে।

আমরা এ কোন দেশে বসবাস করছি? শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবির মধ্যেও ভয়ভীতি খোঁজার চেষ্টা করা হচ্ছে। যে কোনো আন্দোলনের মধ্যেই সরকারবিরোধী গন্ধ খোঁজা হচ্ছে।’ শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে কোটা সংস্কার আন্দোলনে নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থীদের উদ্বিগ্ন অভিভাবক সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন।

সমাবেশে বিশিষ্ট আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া বলেন, যারা নিপীড়ন করছেন তারা নিজেরাও নিশ্চিত নন, তারা কেন এমন করছেন। তিনি বলেন, হাতুড়িপেটা করে সরকারি চাকরি পাওয়া যাবে না। যারা ভাবছেন পাবেন, তারা বোকার স্বর্গে বাস করছেন।

পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অত্যন্ত ভয়াবহ চিত্র দেখতে পাচ্ছি। আইনের লোক অপরাধ করে পার পেয়ে যাবে- এমনটা ভাবাও বোকামি। নিপীড়িত ছাত্রীরা ফোন দিয়ে জিজ্ঞেস করেন, পুলিশ তাদের ধর্ষণের হুমকি দিচ্ছে, তাহলে নিরাপত্তা চাইব কার কাছে?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ফাহমিদুল হক বলেন, আমরা এমন এক সময় এসে পৌঁছেছি যখন সবকিছু উল্টো দিকে চলছে। যে আক্রান্ত তাকে ধরা হচ্ছে, হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না। অথচ আক্রমণকারী নির্বিঘ্নে ঘুরে বেড়াচ্ছে। হাতুড়ি দিয়ে বর্বরভাবে আঘাত করা হচ্ছে। আমরা এ কোন দেশে বসবাস করছি? এটা কি উল্টো রাজার দেশ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক জাকির হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবির মধ্যে ভয়ভীতি খোঁজার চেষ্টা করা হচ্ছে। যে কোনো আন্দোলনই সরকারবিরোধী গন্ধ খোঁজা হয়। আন্দোলনের পক্ষে যখন সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্লাস ছেড়ে বেরিয়ে আসে তখন সেটা কিভাবে অযৌক্তিক হয়?

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুরুর বাবা মো. ইদ্রিস হাওলাদার বলেন, আমি একজন কৃষক। জায়গা জমি বিক্রি করে ছেলের চিকিৎসার খরচ বহন করছি। যে নির্যাতন করা হয়েছে তাতে তার জীবন এখন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পর তাকে বের করে দেয়া হয়েছে। মানববন্ধনের আহ্বায়ক ও সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী হাসনাত কাইয়ুম বলেন- সরকারের কাছে প্রশ্ন, আমাদের নিপীড়ন করবে কেন?

সুত্র- যুগান্তর